আরবী শিক্ষা

Only administrators can add new users.

আরবি শিক্ষার গুরুত্ব

 

পৃথিবীতে যত ভাষা আছে তার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভাষা হল আরবি ভাষা। এর পারলৌকিক যেমন গুরুত্ব রয়েছে, তেমনি রয়েছে ইহলৌকিক অনেক গুরুত্ব।
আমরা মুসলমান। আমাদের রাসুল (সা.) এর ভাষা হচ্ছে আরবি। রাসুলুল্লাহ (সা.) এর প্রতি নাযিলকৃত মহাগ্রন্থ আল ক্কুরআনের ভাষা হচ্ছে আরবি। তাছাড়া জান্নাতের ভাষা হবে আরবি। সুতরাং ইসলাম সম্পর্কে জানতে হলে ক্কুরআন পড়তে হবে। হাদিস পড়তে হবে। উভয়টি ভাল করে বুঝতে হবে। এরজন্য আমাকে আরবি ভাষা ভাল করে শিখতে হবে। আরবি ভাষা না শিখে কেউ ভাল করে ইসলাম বুঝতে পারবে না। আর ইসলাম ভাল করে না বুঝে কেউ ইসলামের ওপর চলতে সক্ষম হবে না। তাই প্রকৃত মুসলমান হতে হলে আরবি ভাষা ভাল করে শিখতে হবে। বিশুদ্ধ তিলাওয়াত ও ক্কুরআনের বিশুদ্ধ মর্মার্থ অনুধাবন করতে হবে। যে ভাবে আমাদের পুর্বসুরিরা ক্কুরআন-হাদিস শিখেছেন ও বুঝেছেন।
আরবি ভাষার ইহলৌকিক গুরুত্বও অপরিসীম। আন্তর্জাতিক ভাষার কাতারে আরবি ভাষা দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। বিশেষ করে আমাদের বাংলাদেশের মানুষের জন্য আরবি ভাষার প্রার্থিব অনেক গুরুত্ব রয়েছে। আমাদের মানবসম্পদের অধিকাংশ আরব দুনিয়াতে কর্মরত। সেখানকার ভাষা জানা থাকলে যে অর্থনৈতিক ভাবে লাভবান হওয়া যাবে তাতে কোন সন্দেহ থাকার কথা নয়।
আসুন! আমরা দ্বিনি ও দুনিয়াবি কল্যান সাধনে আরবি ভাষা শিক্ষা করি। ইসলামকে ভাল করে শিখি। প্রকৃত মুসলমান হিসেবে গড়ে উঠি। ইহলৌকিক সমৃদ্ধি ও পারলৌকিক কামিয়াবি অর্জনে ব্রতী হই।
এই লক্ষ্যে সাওতুল ইসলামের আরবি ভাষা শিক্ষা কোর্সে অংশগ্রহন করে আমাদের দুনিয়া আখিরাত সুন্দর করে তুলি। আল্লাহ আমাদের সহায় হোন।